1. admin@dailyteligraf.com : admin :
শুক্রবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৩, ০৫:১৭ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
চট্রগ্রামে এবার ফুসফুসের বিভিন্ন রোগ নির্ণয় পরীক্ষা হবে এপিক হেলথ কেয়ার সেন্টারে সোনারগাঁও পৌর আ’লীগের কর্মী সম্মেলনে কবির হোসেনের বিশাল শোডাউনে যোগদান সোনারগাঁও পৌর আ’লীগের কর্মী সম্মেলনে আসাদুল ইসলাম আসাদ দৃষ্টিনন্দন শোডাউনে যোগদান সোনারগাঁয়ে যমুনা ব্যাংক লিমিটেড উপশাখার শুভ উদ্বোধন সোনারগাঁয়ে সন্ত্রাসীদের হাত থেকে যুবককে বাচাঁতে গিয়ে হামলার শিকার হলেন ব্যবসায়ী বান্দরবান পার্বত্য জেলার শ্রেষ্ঠ থানা নির্বাচিত লামা থানা চট্টগ্রামমে সাড়ে ৯ কোটি টাকা পেলেন ৪৪ ভূমি মালিক চট্টগ্রাম বিএনপির বিক্ষোভ মিছিল থেকে পুলিশের সঙ্গে বিএনপির সংঘর্ষ, আটক ২০ চট্টগ্রাম বন্দরে যুক্তরাজ্যের রাজকীয় নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে মনোনয়ন ফরম জমা দিলেন এডভোকেট মো: ফিরোজ মিয়া

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন জাহাঙ্গীর, রানা ও মনির গংদের হাতে জিম্মি ছিলো – ভারপ্রাপ্ত মেয়র আসাদুর রহমান কিরণ

  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২৫ আগস্ট, ২০২২
  • ৮০ বার পঠিত

জাহিদ হাসান জিহাদঃ গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র আসাদুর রহমান কিরণ বলেন,গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন জাহাঙ্গীর, রানা,মনির গ্যাং দের হাতে জিম্মি ছিলো তাদের অনিয়ম স্বেচ্ছাচারীতায় কোণঠাসা হয়ে পরে ছিলো পুরা গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন। আমরা জানি কোন রেজুলেশন পাশ করতে হলে সকল কাউন্সিলর দের সাথে মাসিক সম্মেলনে সেই রেজুলেশন পাশ করাতে হয়। কিন্তু কাউলতিয়া এলাকায় মাসিক সম্মেলনে বিলের খাতায় সকল কাউন্সিলরের স্বাক্ষর থাকলেও সেখানে নেই কত টাকার প্রকল্প ব্যায় তার নিদৃষ্ট এমাউন্ট। পরবর্তীতে টেন্ডার খাতায় ৪০ কোটি ২৫ লক্ষ টাকার বিল দেখিয়ে ২০ কোটি টাকারও অধিক উত্তাল দেখানো হয়েছে। এমন দূর্নীতির হিসেবে এটি মাত্র একটি এলাকার শুধু টঙ্গী ব্যাতিত গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন সব জায়গায় এমন দূর্নীতির প্রমান ফুটে উঠেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা যুগ্ম সচিব এস এম শফিউল আলম এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য কালে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন,বহিস্কৃত মেয়র জাহাঙ্গীর আলম ৫টি কোম্পানি থেকে হোল্ডিং ট্যাক্স প্লান বাবদ ২কোটি ৬০ লক্ষ টাকা আদায় করেন এবং সেই টাকা কোনাবাড়ির একটি শাখা ব্যাংকে জমা রাখেন। পরবর্তীতে তিনি নিজে ও তার বাড়ির কর্মচারীদের দিয়ে তিনি ওই টাকা উত্তলোন করে আত্মসাৎ করেছেন। এমন ২৪টি দুর্নীতির তথ্য প্রমাণ তদন্ত কমিটির হাতে। খুব শিগগিরী বহিস্কৃত মেয়র জাহাঙ্গীর আলম এর বিচারীক কার্যক্রম শুরু হবে। গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনকে ৮হাজার কোটি টাকার বরাদ্দ মননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা দিয়েছেন। কিন্তু এই টাকার সুষম বন্টন সিটি কর্পোরেশনের ৫৭টি ওয়ার্ডে করা হয়নি। যে খানে ড্রেন তৈরি ১০ বছর পরে করলেও নগরী কোন সমস্যা হতো না সেই সকল জায়গার কাজ তিনি শুরু করেছেন। যদি সেই টাকার সুষম বন্টন করা হতো তাহলে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন আরো দ্রুত আধুনিক নগরীতে পরিনত হতো। গাজীপুরের জনগণ কে বহিষ্কৃত মেয়র মানুষ হিসেবে গণ্য করেনি। ইতিমধ্যে সামাজিক বিচার হয়েগেছে তার। বঙ্গবন্ধু কে নিয়ে কটুক্তি কারিকে কখনোই জাতি ক্ষমা করবে না। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে যে কটুক্তি কথা তিনি বলেছে আমি সাধারণ নাগরিক হিসবে তার রাষ্ট্রয় বিচার শুরু করার দাবি জানাচ্ছি এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন সংরক্ষিত মহিলা সাংসদ সদস্য বেগম শামসুন্নাহার ভূইয়া, গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আলহাজ্ব আফজাল হোসেন সরকার রিপন, গাজীপুর মহানগর আওয়ামীলীগের সদস্য আবুল কাশেম ,প্যানেল মেয়র এড, আয়েশা আক্তার, কাউন্সিল হাজী আব্দুল কাদির মন্ডল, শাহজাহান মিয়া সাজু, কাজী আবু বক্কর সিদ্দিক, রফিকুল ইসলাম রফিক, খোরশেদ আলম সরকার প্রমুখ,আলোচনা সভা শেষে ১৫ ই আগস্টে নিহত সকল শহীদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে সমাপ্ত করা হয়।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১  ডেইলি টেলিগ্রাফ
Theme Customized By Theme Park BD