1. admin@dailyteligraf.com : admin :
রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৮:১৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
পেট ব্যথা হলেও সিঙ্গাপুর যাওয়া এখন ফ্যাশন: ভূমিমন্ত্রী গাজীপুর টঙ্গী সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের আহবায়ক কমিটির অনুমোদন গাজীপুর পুবাইলে আওয়ামীলীগ থেকে থানা ছাত্রলীগের সভাপতি পদপ্রার্থী মিনহাজ জনসভায় আ.লীগ সরকারি সুযোগ-সুবিধা ব্যবহার করে না: হুইপ স্বপন আয়কর সেবা মাসে চট্টগ্রামে আদায় দেড়শ কোটি টাকা ২০২৪ সাল থেকে চট্টগ্রাম-জেদ্দা নৌরুটে হজযাত্রী বহন করবে ৩২ তলাবিশিষ্ট জাহাজ চট্টগ্রামে বন্য হাতির আক্রমণে ক্ষতিগ্রস্ত ২১ পরিবার পেল অনুদান গাজীপুর বাসের সাঁকো বানিয়ে আওয়ামীলীগ নেতার চাঁদাবাজি সোনারগাঁয়ে সনমান্দি ইউনিয়নের প্রাথমিক শিক্ষার মান উন্নয়ন শীর্ষক আলোচনা সভা ও ব্যাগ বিতরণ অনুষ্ঠান চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে কমেছে পাসের হার, বেড়েছে জিপিএ ৫

চট্টগ্রাম নগরীর চসিক’র ৩শতাধিক অবৈধ দোকানপাট উচ্ছেদ

  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ৮ নভেম্বর, ২০২২
  • ৪৩ বার পঠিত

মাসুদ পারভেজঃ চট্টগ্রাম নগরীর দখল মুক্ত ফুটপাত বাস্তবায়নে একের পর এক চলছে চসিকেকের উচ্ছেদ অভিযান। এরই ধারাবাহিকতায় আজ বায়েজিদ এলাকায় চসিকের ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হয়।এতে বিভিন্ন সড়ক থেকে তিন শতাধিক অবৈধ দোকানপাট উচ্ছেদ করা হয়।

আজ মঙ্গলবার (৮নভেম্বর) চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হয়।

চসিক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মারুফা বেগম নেলী এর নেতৃত্বে পরিচালিত অভিযানে নগরীর বায়েদিজ বোস্তামী থানাধীন বাংলাবাজার সড়ক,বায়েজিদ বোস্তামী মাজার গেইটের কাছাকাছি বাজার সড়ক, নাসিরাবাদশিল্প এলাকা সড়ক ও পলিটেকনিকেল মোড় এলাকায় রাস্তা ও ফুটপাত দখল করে অবৈধভাবে গড়ে উঠা প্রায় তিন শতাধিক দোকানপাট উচ্ছেদ করা হয়। উচ্ছেদ করে রাস্তা ও ফুটপাতের জায়গা অবৈধ দখলমুক্ত করে সর্বসাধারনের জন্য উম্মুক্ত করে দেওয়া হয়। অভিযানে অংশ নেন সিটি মেয়রের একান্ত সচিব ও প্রধান পরিচ্ছন্ন কর্মকর্তা মুহাম্মদ আবুল হাশেম।

অভিযানকালে সিটি কর্পোরেশনের সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারী, র‍্যাব-৭,বায়েজিদ থানা পুলিশ ও চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ ম্যাজিস্ট্রেটকে সহায়তা প্রদান করেন।

উল্লেখ্যঃ বায়েজিদে বাজার সড়কে শতাধিক
ফুটপাত গড়ে উঠা দীর্ঘ ৩০ বছর আগের স্থায়ী অস্থায়ী স্থাপনা। দখল মুক্ত ফুটপাত চসিকের উচ্ছেদ অভিযানে স্থায়ী,অস্থায়ী অবৈধ দোকানপাট স্থাপনা উচ্ছেদ ও দখল মুক্ত ফুটপাত বাস্তবায়নে গত ১৪ সেপ্টেম্বর বায়েজিদ বোস্তামী মাজার গেইট মেইন রোডে শতাধিক অস্থায়ী,
ভাসমান অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। কিন্তু ভেঙ্গে দেওয়া স্থাপনার কাছাকাছি সত্বেও বাজার সড়কের শতাধিক স্থায়ী,অস্থায়ী অবৈধ দোকানপাট রহৎস্যজনক কারণে ভাঙ্গা হয়নি। বাস্তবে না ভেঙ্গে ১৫ দিন সময় দিয়ে নিজ দায়িত্বে সরিয়ে ফেলার সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়। তা আর কার্যকর করা হয়নি।কালক্ষেপণ করে ৩মাসের মাথায় আজ ভেঙ্গে দিলেও কিছু স্থাপনা ভাঙ্গা হয়নি এখনো।

ক্ষতিগ্রস্ত দোকানদারের দাবি আমরা ৩০ বছর ধরে দোকান করে কোনরকম জীবিকা নির্বাহ করছি। সামান্য দোকানের উপরেই আমাদের রুটি রোজগার,ঘরসংসার,ছেলে মেয়ের লেখাপড়া,ভবিষ্যৎ সবকিছুই। উচ্ছেদে আজ সবই শেষ। বাঁচা মরা এক সমান।

ক্ষতিগ্রস্থের দাবি,ভেঙ্গে দিবে শুনছি।আমারা অসহায় নিরুপায় কোথায় যব? কিন্তু কখনো ভাঙ্গবে কখনো ভাঙ্গবে বলে গুজবের শেষ পর্যন্ত ভাঙ্গাই হল। কিন্তু না ভাঙ্গার ছলে কালক্ষেপন নাটকীয় কর্মকাণ্ডে আমাদের আজ হঠাৎ করেই ভেঙ্গে দিল।যা কোনভাবেই মানতে পারছি না।ভেঙ্গে দেওয়াই আমরা আর্থিক,মানসিক সর্বদিক দিয়ে অপূরণীয় ক্ষতিগ্রস্ত। আকষ্মিক উচ্ছেদে যা কোন ভাবেই কাটিয়ে ওঠা সম্ভব নয়। আমাদের পুনর্বাসন না করে এভাবে পেটে লাথি,যন্ত্রনা না দিয়ে একেবারেই মেরে ফেলাই ভালো ছিল।

গরীবের কেউ নেই। রোহিঙ্গাদের জায়গা হলেও আমাদের হয় না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও মেয়রের প্রতি আকুল আবেদন। আমাদের পুনর্বাসন করা হোক।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর
© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১  ডেইলি টেলিগ্রাফ
Theme Customized By Theme Park BD